পিত্তথলিতে পাথর

এই পোস্টে পড়ুন: English العربية 'তে

পিত্তথলিতে পাথর

পাচক রসের কঠিন জমায়েতকেই ‘পিত্তথলিতে পাথর’ বলা হয়। উদরের ডান দিকে যকৃতের নিচে অবস্থিত পিত্তথলি একটি নাশপাতি আকৃতির ছোট অঙ্গ। দেহের ক্ষুদ্রান্ত্র থেকে নিঃসৃত রস পিত্তথলিতে এসে সঞ্চিত হয়। পিত্তথলির আকৃতি মিহি বালিদানা থেকে শুরু করে গল্ফ বলের মত হতে পারে। পিত্তথলিতে এক বা একাধিক পাথর উৎপন্ন হতে পারে।

পিত্তথলিতে পাথরের প্রকারভেদ

● পিগমেন্ট পিত্তপাথর: পিত্ত যখন অতিরিক্ত পরিমাণে বিলিরুবিন ধারণ করে তখন এই দোকানে পিত্ত পাথর উৎপন্ন হতে পারে। এটি গাঢ় খয়েরী অথবা কালো রংয়ের হতে পারে।

● কোলেস্টেরল পিত্তপাথর: এটি সবথেকে প্রচলিত পিত্ত পাথরের প্রকারভেদ। এটি সাধারনত হলুদ রংয়ের হয়। এটি প্রধানত দ্রবীভূত কোলেস্টেরল কিন্তু অন্যান্য পদার্থও এর সাথে মিশ্রিত থাকতে পারে।

পিত্তথলিতে পাথর উৎপন্ন হওয়ার কারণ

১. পিত্ততে অতিরিক্ত বিলিরুবিনের উপস্থিতি-
কোনো বিশেষ কারণে দেহের রক্ত কণিকা যখন অতিরিক্ত ভেঙে যায় তখন যকৃৎ অতিরিক্ত বিলিরুবিন উৎপন্ন হয়। কারণগুলোর মধ্যে পিত্তথলির সংক্রমণ, যকৃতের প্রদাহ, রক্তের কোনো বিশেষ অসুবিধা উল্লেখযোগ্য। অতিরিক্ত বিলিরুবিন উৎপন্ন হওয়ার ফলে পিত্তথলিতে পাথর উৎপন্ন হয়।

২. পিত্ততে অতিরিক্ত কোলেস্টেরলের উপস্থিতি-
যকৃৎ সাধারণত যে পরিমাণ কোলেস্টেরল নিঃসরণ করে তা দ্রবীভূত করার জন্য পিত্ততে যথেষ্ট পরিমাণে রাসায়নিক পদার্থ থাকে। পিত্ত যতটা দ্রবীভূত করতে পারে যখন যকৃৎ তার থেকে অতিরিক্ত পরিমাণে কোলেস্টেরল উৎপন্ন হয় তখন অতিরিক্ত কোলেস্টেরল স্ফটিকে রূপান্তরিত হয় এবং পরে ধীরে ধীরে পাথরে পরিণত হয়।

৩. পিত্তথলির শূন্যতা-
যখন পিত্তথলি সম্পূর্ণ শূন্য থাকে না তখন পিত্ত ঘনীভূত হয় যা পরবর্তীকালে পাথরে পরিণত হয়।

উপসর্গ

প্রাথমিকভাবে এই রোগের কোনো উপসর্গ লক্ষ্য করা যায় না, কিন্তু যদি নালিতে এটি সঞ্চিত হয় তখন গুরুতর সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

  • বক্ষপিঞ্জরের নিচে উদরের মধ্যভাগে হঠাৎ ব্যথা অনুভব
  • ডান বাহুতে ব্যথা অনুভব
  • উদরের মধ্যে উপরের ডান দিকের মধ্যভাগে ক্রমশ গাড় ব্যথা অনুভব
  • বমি বমি ভাব এবং বমি
  • পশ্চাদে ব্যথা অনুভব

 

পিত্তথলিতে পাথর সঞ্চিত হওয়ার ফলে এই ব্যথা কয়েক মুহুর্ত স্থায়ী হতে পারে কিংবা কয়েক ঘণ্টা

রোগের নির্ধারণ

  • উদরের আল্ট্রাসাউন্ড: পিত্তথলিতে পাথর এর উপস্থিতি নির্ধারণ করার জন্য এটি একটি প্রচলিত পদ্ধতি। উদরের যকৃতের স্থানে ডাক্তার ট্রান্সডিউশর নামক একটি যন্ত্র সামনে এবং পেছনে নাড়াতে থাকেন। এই সংকেত যন্ত্রটি থেকে কম্পিউটারে স্থানান্তরিত হয় এবং সেখান থেকে উদরের অন্তর্ভাগ এর ছবি দেখতে পাওয়া যায়।

 

  • এন্ডোস্কোপ আল্ট্রাসাউন্ড: উদরের আল্ট্রাসাউন্ডের যে ক্ষুদ্র পাথরের উপস্থিতি টের পাওয়া যায় না তাদের উপস্থিতি প্রমাণ করার জন্যই এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। ডাক্তার মুখ দিয়ে পাচনতন্ত্রের নালীর মধ্যে দিয়ে একটি সরু ক্ষুদ্র নমনীয় নল পাঠান। নলের মধ্যে অবস্থিত ট্রান্সডিউশরটি শব্দ তরঙ্গ সৃষ্টি করে আশেপাশের কোষের স্পষ্ট ছবি তৈরি করে।

 

  • অন্যান্য পরীক্ষা: পিত্তথলিতে পাথর এর উপস্থিতি নির্ধারণ করার জন্য আরও কিছু পরীক্ষা করা হয়ে থাকে। এই পরীক্ষাগুলো হলো হেপাটোবিলিয়ারি ইমিউনো অ্যাসিটিক অ্যাসিড স্ক্যান, ম্যাগনেটিক রেজোন্যান্স কোলান্জিওপ্যানক্রিয়াটোগ্রাফি, কম্পিউটারাইজড টোমোগ্রাফি, এন্ডোসকপিক রেট্রোগ্রেড কোলান্জিওপ্যানক্রিয়াটোগ্রাফি। ERCP পদ্ধতির মাধ্যমে ডাক্তার প্রতিশব্দ পিত্তথলিতে পাথর বার করে দিতে পারে।

 

  • রক্ত পরীক্ষা: রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে পিত্তথলিতে পাথর জমার জন্য জন্ডিস, সংক্রমণ, অগ্নাশয়ের প্রদাহ এবং রোগের অন্যান্য জটিলতা সম্পর্কে জানতে পারা যায়।

চিকিৎসা

উপসর্গ অনুপস্থিত থাকলে বহু মানুষেরই এই রোগের চিকিৎসার দরকার হয় না। উপসর্গ এবং পরীক্ষার ফলাফলের ওপর এই নির্ভর করে ডাক্তার সিদ্ধান্ত নেন কোন চিকিৎসা পদ্ধতিতে এই রোগ নিরাময় করা যেতে পারে। এই রোগের থেকে কোনো জটিলতা সৃষ্টি হলে যেমন উপরের ডান দিকে গাঢ় যন্ত্রণা করলে ডাক্তার রোগীকে সতর্ক করতে পারেন।

কোলেসিস্টেকটমি

এটি একটি শল্যচিকিৎসা যার মাধ্যমে ডাক্তার পিত্তথলিতে পাথর বের করে আনতে পারেন। ডাক্তার এই পদ্ধতির প্রয়োগ করতে পারে কারণ পিত্তথলিতে পাথর ক্রমশ বাড়তে থাকে। যকৃৎ থেকে পিত্ত পিত্তথলিতে পাথর হওয়ার পরিবর্তে ক্ষুদ্রান্ত্রে সরাসরি প্রবাহিত হয়। পিত্তথলি বাদ দিয়ে দেওয়ার ফলে দেহের ক্ষমতার কোন পরিবর্তন হয় না তবে ক্ষণিকের জন্য ডায়রিয়া হতে পারে।

ঔষধ

ঔষধ পিত্তথলিতে পাথরকে দ্রবীভূত করতে সাহায্য করে। এই পদ্ধতি পিত্তথলির পাথর দ্রবীভূত করতে প্রায় কয়েক মাস এমনকি বছরও লাগিয়ে দিতে পারে। সর্বোপরি পিত্তথলিতে পাথর আবারও সৃষ্টি হতে পারে। যেসব ব্যক্তি শল্য চিকিৎসা করাতে পারেন না তাদের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময় ঔষধ ব্যবহার করা হয়।

সহায়তা প্রয়োজন?

যোগাযোগ করুন

নিম্নলিখিত তথ্যগুলি সঠিকভাবে পূরণ করুন যাতে আমরা আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারি

ধন্যবাদ!

যোগাযোগ করার জন্য ধন্যবাদ! আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার সাথে যোগাযোগ করব।

দ্রুত উত্তরের জন্য, আপনি ওয়েবসাইটের নীচে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট বোতামটি ব্যবহার করে আমাদের সাথে চ্যাট করতে পারেন।