করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি / অ্যাঞ্জিওগ্রাম

এই পোস্টে পড়ুন: English العربية 'তে

করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি / অ্যাঞ্জিওগ্রাম

অ্যাঞ্জিওগ্ৰাফি হল একটি ইমেজিং বা প্রতিবিম্বিত কৌশল শরীরের রক্ত নালীকার জন্য ব্যবহার করা হয়; শরীরে ধমনী গুলি অথবা শিরাগুলির বাধাপ্রাপ্ত হওয়া অথবা পর বর্ধিত হওয়া পরীক্ষা করে দেখার জন্য ব্যবহার করা হয়

করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি প্রক্রিয়া চলাকালীন যা ঘটে

চিকিৎসক একটি পাতলা, নমনীয় টিউব প্রবেশ করান থাকে ক্যাথিটার বলা হয় যা থ্রেডেড করা হয় কাঙ্খিত ধমনীতে যা সাধারণত হাত অথবা গ্ৰয়েন’এর(কটিসন্ধি) হয়। ক্যাথিটার এর মাধ্যমে একটি ডাই (রঞ্জক) অথবা বিসদৃশ উপাদান ইনজেকশন দেওয়া হয় যা এক্সরে চিত্র তৈরি করতে রক্তনালীর ভেতরে রক্তকে দৃশ্যমান করে তোলে এবং বাধাপ্রাপ্ত অথবা বৃদ্ধি প্রাপ্ত হওয়া রক্তনালিকা গুলিকে দেখায়। অ্যঞ্জিওগ্ৰাম হিসাবে ডাই (রঞ্জক) এর নড়াচড়া রেকর্ড করে এবং তা একটু মনিটরের মাধ্যমে দেখা হয়।

এই ডাইটি (রঞ্জকটি) পরবর্তীকালে কিডনিগুলির মাধ্যমে শরীর থেকে নির্মূল করা হয়।

করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি পদ্ধতি কত সময় নিতে পারে?

এই প্রক্রিয়াটি ৩০ থেকে ৬০ মিনিট স্থায়ী হতে পারে।

যদি স্টেন্ট (পাতলা নমনীয় টিউব বা নল) অ্যাঞ্জিওগ্রাফি হওয়ার সময় স্থাপন করা হয়, তবে একটু বেশি সময় লাগতে পারে।

করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি হওয়ার পর একজন রোগী কখন বাড়ি যেতে পারে?

প্রক্রিয়াটিকে অনুসরণ করার জন্য রোগী কয়েক ঘন্টা অথবা রাত্রি পর্যন্ত হাসপাতালে থাকতে পারে। ডিহাইড্রেশন বা জলকষ্ট রোধ করার জন্য রোগীকে কোন পানীয় পান করতে পরামর্শ দেওয়া হয় এবং কিডনি থেকে ডাই (রঞ্জক) বাহির করার জন্য।

করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি হওয়ার পর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া গুলি কি?

অ্যাঞ্জিওগ্ৰামের পরে, রোগীর হতে পারে :

  • আঘাতে বিবর্ণ হওয়া
  • সোরনেস / বেদনা
  • যেখানে কাটা হয়েছে তার কাছাকাছি রক্তক্ষরণ, এই সমস্যাগুলি সাধারণত কয়েক দিন অথবা সপ্তাহ পরে বিলীন হয়ে যায়

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

অ্যাঞ্জিওগ্ৰাফি পরীক্ষা কি বেদনাদায়ক?

এই প্রক্রিয়াটি সাধারণত এনেসথেসিয়া(অসাড় করা) প্রয়োগের মাধ্যমে করা হয়, যাতে রোগী কোন রকম যন্ত্রণা অনুভব না করে

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম থেকে রিকভার বা পুনরুদ্ধার হতে কত সময় লাগতে পারে?

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম হবার পর একজন রোগী তিন দিনের মধ্যে তার কর্মজীবনে ফিরে যেতে পারে।

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম কি সার্জারি বা অস্ত্রোপচার হিসাবে বিবেচনা করা হয়?

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম কখনোই একটি সার্জারি নয়, এটি একটি বিশেষ ধরনের এক্সরে টেস্ট / পরীক্ষা।

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম কতখানি নিরাপদ?

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম সাধারণত নিরাপদ হয়ে থাকে, কিন্তু যে সমস্ত রোগীরা খুবই অসুস্থ বাইপাস সার্জারি অথবা অ্যঞ্জিওপ্লাস্টি প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে পারবেন না তাদের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয় না।

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম হওয়ার কত তাড়াতাড়ি পরে একজন রোগী বিমানে চড়তে পারবেন?

অ্যঞ্জিওগ্ৰাম হওয়ার ২ দিন পর একজন রোগী বিমানে চড়তে সক্ষম হতে পারেন।

যোগাযোগ করুন

জিনজার স্বাস্থ্যসেবা ভারতে চিকিত্সার জন্য নিখরচায় গাইডেন্স এবং সহায়তা সরবরাহ করে। ভারতে ভাল চিকিত্সার অভিজ্ঞতা পেতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন

contact us-small

Blog Posts...

Never ignore these signs of Breast Cancer
নভেম্বর 3, 2020

স্তন ক্যান্সারের এই লক্ষণগুলিকে কখনই উপেক্ষা করবেন না

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে আমরা আমাদের দেহে অনেক পরিবর্তন লক্ষ্য করি। এর মধ্যে কিছু পরিবর্তন যা সাধারণ বলে মনে হয়...
Common Breast Cancer myths
নভেম্বর 2, 2020

স্তন ক্যান্সারের সাধারণ পৌরাণিক কাহিনী

আজকাল, স্তন ক্যান্সার সম্পর্কে প্রচুর তথ্য পাওয়া যায়। তবে এগুলি সব পরিষ্কার বা নির্ভুল নয়। এমন অনেকগুলি পৌরাণিক কাহিনী...
best healthcare startup
মার্চ 26, 2020

জিঞ্জার স্বাস্থ্যসেবা- সেরা স্বাস্থ্যসেবা স্টার্টআপ

জিঙ্গার হেলথ কেয়ার সম্মানজনক সিলিকন ইন্ডিয়া ম্যাগাজিন দ্বারা দিল্লি এনসিআর-এর শীর্ষ 10 হেলথ কেয়ার স্টার্টআপসের মধ্যে স্থান পেয়ে খুশি।...
Arabic Interpreter
মার্চ 26, 2020

জিনজার হেলথ কেয়ার ভারতে বিনামূল্যে আরবিক দোভাষী পরিষেবা সরবরাহ করবে

জিঙ্গার স্বাস্থ্যসেবা রোগীদের কোনও অতিরিক্ত ব্যয় ছাড়াই বিশেষজ্ঞ, প্রশিক্ষিত এবং যাচাই করা দোভাষী প্রদানের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক রোগীদের যোগাযোগের বাধা...